স্টিভ জবস

09 Aug, 2016 Tags:  ATM Iftekhar Hossain

Your Life is a reflection of your thoughts..Think well.....
হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে জীবন সম্পর্কে যা বললেন স্টিভ জবস । টেকনোলজির এই রাজপূত্র মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে একেবারে অন্তিম মুহুর্তে জীবন সম্পর্কে কিছু অসাধারণ কথা বলেছিলেন-

কথাগুলি নিম্নরূপ :
বাণিজ্যিক দুনিয়ায় আমি সাফল্যের একেবারে সর্বোচ্চ চুড়োয় আরোহণ করেছি।যা আপনাদের কাছে সাফল্যের এক অনুপম দৃষ্টান্ত।কিন্তু,এ কথা ধ্রুব সত্য কাজের বাইরে আমার সামান্যই আনন্দ ছিলো। সম্পদের প্রলোভনে বিভোর ছিলাম সারা জীবন। আজ মৃত্যুশয্যায় শুয়ে যখন জীবনটাকে দেখি-তখন আমার মনে হয়, আমার সব সম্মান, খ্যাতি আর অর্জিত সম্পদ আসন্ন মৃত্যুর সামনে একেবারেই ম্লান, তুচ্ছ আর অর্থহীন।এ্যাপলের বিশাল সাম্রাজ্য আমার নিয়ন্ত্রনে ছিলো-কিন্তু মৃত্যু আজ আমার নিয়ন্ত্রণের বাইরে।পৃথিবীর অন্যতম ধনী ব্যক্তি কবরের বিছানায় শুয়ে আছে সেটা আদৌ কোনো বড় ব্যাপার না। প্রতি রাতে নিজের বিছানায় শুয়ার আগে আমি কি করলাম -সেটাই আসল ব্যাপার। অন্ধকার রাতে জীবনরক্ষাকারী মেশিনের সবুজ বাতিগুলোর দিকে চেয়ে আমার বুকের গহীনে হাহাকার করে ওঠে। মেশিনের শব্দের ভিতরে আমি নিকটবর্তী মৃত্যু দেবতার নিঃশ্বাস অনুভব করতে পারি। অনুধাবন করতে পারি-শুধু সম্পদ না, সম্পদের সাথে সম্পর্কহীন জিনিসেরও মানুষের অন্বেষণ করা উচিত।

বেকুবের মতো সম্পদ আহরণই সবকিছুই নয়- আরো অনেককিছু মানুষের জীবনে গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে।আর তা হলো- মানুষের সাথে সুসম্পর্ক তৈরী করা,সৌন্দর্য্য উপলব্ধি করা আর তারুণ্যে একটি সুন্দর স্বপ্ন নিজের হৃদয়ে লালন করা। শুধু সম্পদের পেছনে ছুটলেই মানুষ আমার মতো এক ভ্রান্ত মানুষে পরিণত হতে পারে। সৃষ্টিকর্তা আমাদের সবার হৃদয়ে ভালবাসা অনুভব করার জ্ঞান দিয়েছেন।কেবলমাত্র এই নশ্বর দুনিয়ায় সম্পদের মোহে জড়িয়ে পড়ার জন্য নয়। এই যে মৃত্যু শয্যায় শুয়ে আছি।কই, সব সম্পদতো এই বিছানায় নিয়ে আসতে পারিনি। শুধু আজ সাথে আছে ভালোবাসা, প্রেম, মায়া, মমতার স্ম্বতিগুলোই । এগুলোই শুধু সাথে থেকে সাহস যোগাবে , আলোর পথ দেখাবে। ভালোবাসা পৃথিবীর সর্বত্র ছড়িয়ে আছে- সম্পদ না খুঁজে ভালোবাসাও খোঁজে নিতে হয়। সম্পদ কভু শান্তি আনেনা।মানুষের প্রতি গভীর মমত্ববোধ আর ভালোবাসাই শান্তি আনে।পৃথিবীটাকে দেখো। শুধু সম্পদের পেছনে ছুটে হাহাকার করলে জীবনটাকে উপভোগ করতে পারবে না…

পৃথিবীতে সবচেয়ে দামী বিছানা কি জানেন? তাহলো- হাসপাতালের মৃত্য শয্যা। আপনাকে নিয়ে ঘুরে বেড়ানোর জন্য আপনি একজন গাড়ি চালক রাখতে পারেন। আপনার নিযুক্ত কর্মচারীরা আপনার জন্য অনেক টাকাই আয় করে দিবে।কিন্তু এটাই সবচেয়ে বড় সত্য গোটা পৃথিবী চষে, পৃথিবীর সব সম্পদ দিয়ে দিলেও একজন মানুষও পাবেন না যে আপনার রোগ বয়ে বেড়াবে।

বৈষয়িক যে কোনো জিনিস হারালে আপনি পাবেন। কিন্তু একটা জিনিসই হারালে আর পাওয়া যায়না তা হলো মানুষের জীবন। মানুষ যখন অপারেশান থিয়েটারে যায় তখন সে কেবলি অনুধাবন করে- কেন জীবনের মূল্যটা আগে বুঝিনি!! জীবনের যে স্টেজেই আপনি আজ থাকুন না কেন- ,মৃত্যু পর্দা আপনার জীবনের সামনে হাজির হবেই। সাঙ্গ হবে জীবন। তাই, এই নশ্বর জীবনের পরিসমাপ্তির আগে পরিবারের জন্য, আপনজনের জন্য, বন্ধুদের জন্য হৃদয়ে সবসময় ভালোবাসা রাখুন। নিজের জীবনটাকে ভালোবাসুন। ঠিক নিজের মতো করে অন্যকেও ভালোবাসুন।
collected...

Comments - 0 | Continue Reading

সৃষ্টিকর্তার সিদ্ধান্ত সর্বদাই সর্বোত্তম ও আলোকিত বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের জন্ম

13 Jul, 2016 Tags:  Zahid

উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় Engineering Drawing-এর ব্যবহারিক পরীক্ষায় আমার রাজশাহী ক্যাডেট কলেজের শামসুল হক স্যার আমাকে ১ নম্বর কম দিয়েছিলেন । কারণ উনার ক্লাস ফাঁকি দিয়ে আমি কলেজ প্রিফেক্ট হিসেবে প্রশাসনিক কাজে অধ্যক্ষ স্যার ও Adjutant এর কাছে যেতাম । আর ঐ ১ নম্বরের কারণেই আমি ২য় হই । অধ্যক্ষ স্যার উনাকে রেজাল্টের পর অনেক বকা দেন । শামসুল হক স্যার আমাকে জড়িয়ে ধরে দুঃখ প্রকাশ করেন । আমি স্যারকে বলেছিলাম ১ম আমার খুব কাছের এবং আমার কলেজের বন্ধু Mainur Rahman হয়েছে, তাই কোন কষ্ট নেই । আর বলেছিলাম আল্লাহ এভাবেই চেয়েছেন । সত্যিই আজ এতদিন পরে একই কথা ভাবছি । যদি ১ নম্বর বেশী পেয়ে যৌথভাবে ১ম হতাম তাহলে Gazipur IUT তে ভর্তি হতাম । ঐ সময় Gazipur IUT তে প্রথমদের শতভাগ বৃত্তি দিত । আমার খুব ইচ্ছে ছিল ওখানে পড়ার । ২য় হওয়ার কারণে আড়াই লক্ষ টাকা দিয়ে ভর্তি হতে হত । আমার বাবার তখন সেটি দেয়ার সামর্থ্য ছিলনা । উনি ধার করে ওই টাকাটা দিতে চেয়েছিলেন । আমি রাজী হইনি । তাই হয়ত যারা অর্থের অভাবে পড়তে পারেনা তাদের প্রতি এত দরদ কাজ করে । আজ এতদিন পরে মনে হচ্ছে আল্লাহ এভাবেই চেয়েছিলেন । আর আমাদের জন্য উনি যা নির্ধারণ করেছেন সেটিই সর্বোত্তম । শুধু এতটুকু বলতে পারি তুরস্ক গিয়ে নৈতিক শিক্ষা অর্জন করতে না পারলে আজ হয়ত আলোকিত বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের জন্ম হত না । ধন্যবাদ সৃষ্টিকর্তাকে যিনি আমাকে মানবসেবার রাস্তা দেখিয়ে দিয়েছেন । ধন্যবাদ আমার সকল শিক্ষকমন্ডলী ওপরিবারকে যারা আমাকে উৎসাহ ও অনুপ্রেরনা দিয়েছিলেন ।

Comments - 0 | Continue Reading